উপমান ও উপমিত কর্মধারয় সমাসের পার্থক্য বুঝে নিন খুব সহজেই

উপমান অর্থ তুলনীয় বস্তু। প্রত্যক্ষ কোন বস্তুর সাথে পরোক্ষ কোন বস্তুর তুলনা করলে প্রত্যক্ষ বস্তুটিকে বলা হয় উপমেয়। পরোক্ষ বস্তুটিকে বলা হয় উপমান।উপমান এবং উপমিত হল কর্মধারয় সমাসের অন্তর্গত সমাস। কর্মধারয় সমাসটির সমস্ত পদ সবসময় বিশেষণ হয়। এ কারণে কর্মধারয় সমাসকে বলা হয় বিশেষণ জাতীয় শব্দ তৈরির বিশেষ প্রক্রিয়া।

এখানে উপমান হল বিশেষ্যের সঙ্গে বিশেষণের বা নামের সাথে গুণের তুলনা করা হয়।অপরদিকে উপমিত হল বিশেষ্যের সাথে বিশেষ্যের বা নামের সাথে নামের তুলনা।

নিচে উপমান ও উপমিত কর্মধারয় সমাসের পার্থক্য দেখানো হলঃ-

উপমান ও উপমিত কর্মধারয় সমাসের পার্থক্য

উপমানউপমিত
উপমান কর্মধারয় সমাসে বিশেষ্যের সাথে বিশেষণের তুলনা করা হয়। উপমানের পূর্বপদ সর্বদা বিশেষ্যে হয়, পরপদ সবসময় বিশেষণ হয়।উপমিত কর্মধারয় সমাসে বিশেষ্যের সাথে বিশেষ্যের তুলনা করা হয়। এখানে পূর্বপদ ও পরপদ উভয়পদই সবসময় বিশেষ্য হয়।
ইস্পাতের ন্যায় কঠিন = ইস্পাতকঠিন
স্বর্ণের ন্যায় উজ্জ্বল = স্বর্ণোজ্জ্বল
কাজলের ন্যায় কালো = কাজলকালো
পুরুষ সিংহের ন্যায় = সিংহপুরুষ
বাবু ফুলের ন্যায় = ফুলবাবু
মুখ চন্দ্রের ন্যায় = মুখচন্দ্র

নোটঃ উপমান ও উপমিত কর্মধারয় সমাস সম্পর্কে বিস্তারিত জানতে এই আর্টিকেল টি পড়ুন

Leave a Comment